বাংলাদেশের ১০টি সেরা কলেজ-২০২২

0
15
সেরা কলেজ
Photo credit: canva.com

২০২২ সালের বাংলাদেশের ১০টি সেরা কলেজ

এসএসসি বা এইচএসসি পরীক্ষার পর সব ছাত্র-ছাত্রীদেরই উচ্চ শিক্ষার জন্য কলেজে ভর্তি হওয়ার ইচ্ছা থাকে। সেই সাথে সেরা কলেজে ভর্তি হওয়ার জন্য চিন্তায় থাকে। কিন্তু সঠিক তথ্যের অভাবে অনেক সময় সুযোগ থাকা সত্ত্বেও ভালো কলেজ হাত ফসকে যায়। যা কখনো কখনো সারা জীবন আফসোসের কারণ হয়। এই সমস্যা থেকে আপনাদের একটু হলেও রেহাই দেব। কারণ আজকের আর্টিকেল বাংলাদেশের ১০টি সেরা কলেজ সম্পর্কে।  আপনি যদি সদ্য এসএসসি বা এইচএসসি পাশ করে থাকেন এবং কোন কলেজে ভর্তি হবেন তা নিয়ে চিন্তিত থাকেন তাহলে আটঘাট বেধে বসে যান আমাদের আজকের আর্টিকেলটি পড়তে।

আলোচনার শুরুতেই আমরা আজকের আলোচনার বাংলাদেশের সেরা কলেজ গুলোর নাম, অবস্থান সহ তালিকা আপনাদের সামনে উপস্থাপন করছি। এগুলো হলো:

  • ঢাকা কলেজ
  • হলিক্রস কলেজ
  • নটরডেম কলেজ
  • রাজউক উত্তরা মডেল কলেজ
  • সরকারী বিজ্ঞান কলেজ
  • আনন্দমোহন সরকারি কলেজ
  • সরকারি আজিজুল হক কলেজ
  • এডওয়ার্ড কলেজ
  • পি সি কলেজ
  • বি এম কলেজ
  • ঢাকা কলেজ

ঢাকার সেরা কলেজগুলোর নাম বলতে গেলে প্রথমেই আসে ঢাকা কলেজের নাম। বর্তমানে ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের অন্তর্ভুক্ত এই ঢাকা কলেজটি প্রতিষ্ঠিত হয় ১৮৪১ সালে।  রাজধানীর মিরপুর রোডে অবস্থিত এই কলেজটিতে ছাত্র সংখ্যা ২৫০০০ এর বেশি। কলেজটি নামকরা হওয়ার পেছনে একটি কারণ হলো এর অভিনব ভর্তি পদ্ধতি। কলেজটিতে ভর্তির জন্য বিজ্ঞান বিভাগে জিপিএ ৫, ব্যবসায় শিক্ষা বিভাগে জিপিএ ৪.৭৫ এবং মানবিক বিভাগে জিপিএ ৪.৫০ এর কমে ভর্তি হওয়া যায় না। এই কলেজটি শুধু মাত্র ছাত্রদের জন্য। কলেজটিতে উচ্চমাধ্যমিক থেকে মাস্টার্স পর্যন্ত পড়াশোনা করা যায়। এবারে চলুন এক নজরে ঢাকা কলেজ দেখে নেই:

  • নাম: ঢাকা কলেজ
  • প্রতিষ্ঠা: ১৮৪১ সাল
  • ছাত্র: ২৫০০০
  • ভর্তি: বিজ্ঞান (৫.০০), কমার্স (৪.৭৫), মানবিক (৪.৫০)।
  • কারা পড়তে পারবে: শুধু ছাত্র।
  • পড়াশোনা: উচ্চ মাধ্যমিক থেকে মাস্টার্স।

বাংলাদেশে ক্যাডেট কলেজ কয়টি? ক্যাডেট কলেজের লিস্ট-২০২২

  • হলিক্রস কলেজ

এসএসসি পাশের পর সব মেধাবী ছাত্রীদের প্রথম স্বপ্ন থাকে হলিক্রস কলেজ। পড়ালেখার  অসাধারণ মানের পাশাপাশি যেহেতু ভর্তি পরীক্ষার মাধ্যমে ভর্তি করানো হয় তাই শুধুমাত্র মেধাবীদের একটা মিলনমেলা ই বলা যায় একে। খ্রিস্টান মিশনারী কর্তৃক পরিচালিত এই কলেজটিতে শুধু মাত্র উচ্চ মাধ্যমিক পর্যন্ত পড়াশোনা করার সুযোগ আছে।  তেজগাও এ অবস্থিত এই কলেজটির ছাত্রী সংখ্য মাত্র ২৫০০।  কলেজটি প্রতিষ্ঠিত হয় ১৯৫০ সালে। এই কলেজটিতে বিজ্ঞান, ব্যবসায় শিক্ষা এবং মানবিক তিনটি বিভাগ চলমান আছে। একনজরে দেখে নিন হলিক্রস কলেজ:

  • নাম: হলিক্রস কলেজ।
  • প্রতিষ্ঠা: ১৯৫০।
  • ছাত্রী: ২৫০০
  • অবস্থান : তেজগাঁও।
  • ভর্তির বিভাগ: বিজ্ঞান, ব্যবসায় শিক্ষা, মানবিক।
  • কারা পড়তে পারবে: শুধু ছাত্রী।
  • পড়াশোনা : উচ্চ মাধ্যমিক।
  • নটরডেম কলেজ

হলিক্রসের মতোই এসএসসির পরেই ছেলেদের প্রথম পছন্দ থাকে নটরডেম কলেজ। আর এটি এখন বাংলাদেশের সেরা কলেজ গুলোর মধ্যে অন্যতম। ১৯৪৯ সালে প্রতিষ্ঠিত এই কলেজটিও তার ভালো ফলাফলের জন্য সব কলেজ গুলের মধ্যে জনপ্রিয়তা লাভ করেছে। কলেজটির অবস্থান ঢাকার টয়েনবি সার্কুলার এ। কলেজটিতে ছাত্র সংখ্যা ৬৪০০ এর অধিক। কলেজটিতে ভর্তির জন্য বিজ্ঞান বিভাগের ছাত্রদের জিপিএ ৫, ব্যবসায় শিক্ষা বিভাগের ছাত্রদের জিপিএ ৪ এবং মানবিক বিভাগের ছাত্রদের জিপিএ ৩ প্রয়োজন হয়। এটি খ্রিস্টান মিশনারী পরিচালিত একটি বেসরকারি কলেজ। এক নজরে দেখে নিন নটরডেম কলেজের খুটিনাটি :

সেরা কলেজ
Photo credit: canva.com
  • নাম: নটরডেম কলেজ।
  • প্রতিষ্ঠা: ১৯৪৯ সাল।
  • অবস্থান : টয়েনবি সার্কুলার, ঢাকা।
  • কারা পড়তে পারবে: শুধু ছাত্র।
  • পড়াশোনা: উচ্চ মাধ্যমিক এবং বি.এ।
  • ভর্তির বিভাগ: বিজ্ঞান , ব্যবসায় শিক্ষা, মানবিক। তবে ব্যাচেলর অব আর্টস পড়ার সুযোগ আছে।
  • ছাত্র: ৬৪০০ এর অধিক।
  • রাজউক উত্তরা মডেল কলেজ

রাজধানীর উত্তরার সেক্টর ৬ এর ১৩ নং রোডে অবস্থিত রাজউক উত্তরা মডেল কলেজ। কলেজটি প্রতিষ্ঠিত হয় ১৯৯৪ সালে। কলেজটিতে ছেলে মেয়ে উভয়ে পড়তে পারবে। এই কলেজটিতে ভর্তির জন্য কোনো ভর্তি পরীক্ষা দিতে হয় না। বরং এসএসসিতে পাওয়া জিপিএ এর মাধ্যমেই  ভর্তিচ্ছু ছাত্র ছাত্রীদের কলেজ মনোনয়ন দেয়া হয়। এখানেও বিজ্ঞান বিভাগে জিপিএ ৫ পাওয়ার শর্ত জুড়ে দেয়া হয় এবং বাকি দুইটা বিভাগে জিপিএ ৫ এর কম পেলেই হয়। এই খ্যাতিমান কলেজটাতে ছাত্রছাত্রী সংখ্যা ৪৮৩২ জন। “মানুষ হওয়ার জন্য শিক্ষা ” এই মূলনীতি কে সামনে রেখে এই শিক্ষা প্রতিষ্ঠানটি তার কার্যক্রম চালিয়ে যাচ্ছে। এক নজরে রাজউক উত্তরা মডেল কলেজ :

  • নাম: রাজউক উত্তরা মডেল কলেজ।
  • প্রতিষ্ঠা সাল: ১৯৯৪।
  • অবস্থান : রোড ৩, সেক্টর ৬, উত্তরা, ঢাকা।
  • ছাত্রছাত্রী: ৪৮৩২।
  • কারা পড়তে পারবে: ছেলে মেয়ে উভয়ে।
  • মূলনীতি : মানুষ হওয়ার জন্য শিক্ষা।
  • পড়াশোনা : উচ্চ মাধ্যমিক।
  • ভর্তির বিভাগ: বিজ্ঞান , ব্যবসায় শিক্ষা , মানবিক।
  • সরকারী বিজ্ঞান কলেজ

ঢাকার তেজগাঁও এ অবস্থিত সরকারী বিজ্ঞান কলেজ। কলেজটি ১৯৮৬ সালে প্রতিষ্ঠিত হয়। প্রথম দিকে কলেজটি বিএসসির পাশাপাশি বিবিএ এবং বিএ পড়ার সুযোগ থাকলেও পরবর্তীতে শুধুমাত্র বিএসসি করা যেতো। তবে কলেজটিতে বর্তমানে উচ্চ মাধ্যমিক শিক্ষা কার্যক্রম পরিচালিত আছে। এই কলেজটির ছাত্র সংখ্যা প্রয় ২৫০০। কলেজটি শুধুমাত্র ছেলেদের জন্য। এক নজরে দেখে নিন সরকারি বিজ্ঞান কলেজের খুটিনাটি :

  • নাম: সরকারি বিজ্ঞান কলেজ।
  • প্রতিষ্ঠা: ১৯৮৬ সাল।
  • অবস্থান: ফার্মগেট, তেজগাঁও, ঢাকা
  • পড়াশোনা : উচ্চ মাধ্যমিক।
  • কারা পড়তে পারবে: শুধু ছেলেরা।
  • ছাত্র সংখ্যা : ২৫০০।
  • সরকারি আনন্দমোহন কলেজ, ময়মনসিংহ

দেশের সর্বশেষ বিভাগীয় শহর ময়মনসিংহের ঐতিহ্যবাহী কলেজ সরকারি আনন্দমোহন কলেজ। কলেজটি ১৯০৮ সালে প্রতিষ্ঠিত হয়। ১৯৭৭ সালে এটিকে সরকারিকরণ করা হয়। কলেজের শিক্ষার্থীর সংখ্যা প্রায় ৩৮০০০। এই প্রতিষ্ঠানে উচ্চ মাধ্যমিক, বিএসসি, বিবিএ, বিএ, ডিগ্রি (পাসকোর্স) সবকিছু পড়ার সুযোগ রয়েছে। সরকারী কলেজ হিসেবে উচ্চ মাধ্যমিকে ভর্তির জন্য জিপিএ ৫ এর কড়াকড়ি না থাকলেও একদম কম জিপিএ ধারীরা ভর্তি হতে পারবে না। এখানে ভর্তির জন্য ন্যূনতম  জিপিএ ৪.৫০ থেকে ৪.০০ এর মধ্যে পেতে হবে। একনজরে আনন্দমোহন কলেজ:

  • নাম: সরকারি আনন্দমোহন কলেজ।
  • অবস্থান : কলেজ রোড, ময়মনসিংহ।
  • প্রতিষ্ঠা: ১৯০৮, সরকারীকরণ ১৯৭৭।
  • শিক্ষার্থী : প্রায় ৩৮০০০।
  • কারা পড়তে পারবে: ছেলে মেয়ে উভয়ে।
  • পড়াশোনা : উচ্চ মাধ্যমিক, বিএসসি, বিবিএ, বিএ, পাসকোর্স।
  • সরকারি আজিজুল হক কলেজ, বগুড়া

বাংলাদেশের সেরা কলেজ গুলোর একটি হচ্ছে বগুড়া শহরের প্রাণকেন্দ্রে অবস্থিত এই ঐতিহ্যবাহী কলেজটি প্রতিষ্ঠিত হয় ১৯৩৯ সালে। ১৯৬৮ সালে কলেজটিকে সরকারীকরণ করা হয়। সরকারী কলেজ হিসেবে জিপিএ-র ধরা বাধা নিয়ম না থাকলেও ন্যূনতম জিপিএ র শর্ত কলেজটিও দিয়ে থাকে। এখানে উচ্চ মাধ্যমিক থেকে শুরু করে মাস্টার্স পর্যন্ত পড়াশোনা করা যায় এবং ডিগ্রি নেয়া যায়। একনজরে সরকারী আজিজুল হক কলেজ :

  • নাম: সরকারী আজিজুল হক কলেজ।
  • প্রতিষ্ঠা: ১৯৩৯ সাল।
  • সরকারীকরণ: ১৯৬৯ সাল।
  • কারা পড়তে পারবে: ছেলে মেয়ে উভয়ে।
  • পড়াশোনা : উচ্চ মাধ্যমিক থেকে মাস্টার্স।
  • সরকারী এডওয়ার্ড কলেজ পাবনা

সেরা কলেজ যদি আপনি খুঁজতে যান তবে এটিকে বাদ দেয়া যাবেনা। শিক্ষা প্রতিষ্ঠানের ক্ষেত্রে তা যত প্রাচীন হয় তত ঐতিহ্যবাহী হয়। তেমনি একটা কলেজ এই সরকারি এডওয়ার্ড কলেজ। কলেজ টি পাবনার কেন্দ্রবিন্দুতে অবস্থিত। এই কলেজটি প্রতিষ্ঠিত হয় ১৮৯৮ সালে। প্রায় ২২০০০ শিক্ষার্থীর এই কলেজটিতে উচ্চমাধ্যমিক থেকে শুরু করে উচ্চতর ডিগ্রি নেয়া যায়। একনজরে দেখুন সরকারি এডওয়ার্ড কলেজ :

  • নাম: সরকারি এডওয়ার্ড কলেজ।
  • প্রতিষ্ঠা: ১৮৯৮ সাল।
  • শিক্ষার্থী: প্রায় ২২০০০।
  • কারা পড়তে পারবে: ছেলে মেয়ে উভয়ে
  • পড়াশোনা : উচ্চ মাধ্যমিক থেকে মাস্টার্স।
  • সরকারি বিএম কলেজ, বরিশাল

দক্ষিন বাংলার অক্সফোর্ড নামে খ্যাত এই ব্রজমোহন কলেজ। প্রতিষ্ঠিত হয় ১৮৮৯ সালে। প্রায় ২৭০০০ ছাত্র ছাত্রী নিয়ে কার্যক্রম পরিচালনা করছে কলেজটি। কলেজটিতে ভর্তি পরীক্ষার মাধ্যমে আগে ভর্তি করা হলেও বর্তমানে জিপিএ এর ভিত্তিতে ভর্তি করা হয়। এই কলেজটিতে উচ্চমাধ্যমিক থেকে শুরু করে মাস্টার্স পর্যন্ত পড়াশোনা করার সুযোগ আছে। এক নজরে দেখে নিন  বি এম কলেজের তথ্যদি:

  • নাম: সরকারি বি এম কলেজ।
  • প্রতিষ্ঠা: ১৮৮৯ সাল।
  • ছাত্র ছাত্রী: ২৭০০০।
  •  পড়াশোনা: উচ্চ মাধ্যমিক থেকে মাস্টার্স।
  • কারা পড়তে পারবে: ছেলে মেয়ে উভয়ে।
  • সরকারি পি সি কলেজ, বাগেরহাট

বাগেরহাটের বিখ্যাত কলেজ এই সরকারী পিসি কলেজ। কলেজটি বাগেরহাট জেলার হরিণ খানায় অবস্থিত। এটি প্রতিষ্ঠিত হয় ১৯১৮ সালে। কলেজটিতে উচ্চমাধ্যমিক থেকে শুরু করে মাস্টার্স পর্যন্ত পড়াশোনার সুযোগ আছে। কলেজটির পুরো নাম প্রফুল্লচন্দ্র মহাবিদ্যালয়। দেখে নিন একনজরে কলেজটির বৃত্তান্ত :

  • নাম : সরকারি পি সি কলেজ।
  • প্রতিষ্ঠা: ১৯১৮ সাল।
  • পড়াশোনা : উচ্চমাধ্যমিক থেকে মাস্টার্স।
  • কারা পড়তে পারবে: ছেলে মেয়ে উভয়ে।

শেষকথা

আপনি যদি এতক্ষণ আমাদের পোস্টটি মন দিয়ে পড়ে থাকেন তাহলে নিশ্চয় জেনে গিয়েছেন সেরা কলেজ সম্পর্কে। একটা কথা বলে রাখা ভালো, কোন কলেজ কত ভালো, কত বিখ্যাত তার উপর কিন্তু আপনার রেজাল্ট নির্ভর করবে না। এজন্য আপনাকেই পড়াশোনা করতে হবে ভালোভাবে। আমাদের প্রবন্ধে যে যে কলেজের কথা উল্লেখ আছে সেগুলো প্রত্যেকটাই স্ব মহিমায় স্ব স্থানে ঐতিহ্যের আঁচড় কেটেছে। এখন সিধান্ত আপনার কোথায় ভর্তি হবেন আর কিভাবে নিজের ভবিষ্যত গড়ে নেবেন। তো পাঠক! কোন কলেজটায় ভর্তি হচ্ছেন?

 

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here