বাসে বমি হলে কি করণীয়

0
25

গা‌ড়ি‌তে বা বাসে উঠার কথা মনে হলেই বমির কথা মনে প‌ড়ে। আর মানসিক দুঃশ্চিন্তার মধ্যে প‌ড়ে যায় অনেকেই৷ বমির কারণে কোথাও ঘুরতে যেতে পারেন না অনেকেই৷ সাথে যদি থাকে মাথা ব্যাথা তাহলে তো কষ্টের শেষ নেই৷ এর ফলে যেকোন জায়গায় বিব্রতকর পরিস্থিতির সৃষ্টি হয় এবং মাটি হয়ে যায় ঘুরতে যাওয়ার আনন্দ৷ বমি হবার পেছনে বেশ কিছু কারণ থাকলেও উল্লেখযোগ্য কারণগুলো হচ্ছে- অসুস্থতা, অ্যাসিডিটি এবং বাজে গন্ধ৷
এই পোস্টে এর কিছু প্রতিকার সম্পর্কে আলোচনা করা হয়েছে৷ মনোযোগ দিয়ে পুরো লেখাগুলো পড়‌লে আশা করি কিছুটা হ‌লেও উপকৃত হবেন৷
এক্ষেত্রে নিম্নোক্ত পরামর্শগুলো মেনে চলুনঃ
১৷ জানালার পাশের সীটে বসুন যাতে শরীরে বাতাস লাগে, আপনার শরীরে বাতাস লাগলে এবং মাথা ঠান্ডা থাকলে বমির ভাব কমে যাবে৷
২৷ গা‌ড়ি যেদিকে চলে তার বিপরীত দিকে বসবেন অর্থাৎ গা‌ড়ি উত্তর দিকে গেলে আপনি দক্ষিণ দিকে মুখ দিয়ে বসবেন আর গা‌ড়ি দক্ষিণ দিকে গেলে আপনি উত্তর দিকে মুখ দিয়ে বসবেন৷
৩৷ গা‌ড়িতে বসে বাইরে অন্য কোন গা‌ড়ির দিকে তাকাবেন না৷ কারণ অ‌নেক সময় দেখা যায় অন‌্য গাড়ীতে কারও ব‌মি ‌লেগে আছে ‌সেক্ষেত্রে ব‌মি দে‌খে ব‌মি হওয়ার সম্ভাবনা বে‌ড়ে যায়।
৪৷ সব সময় দূরের কোন দৃ‌শ্যের দি‌কে তাকা‌বেন, কা‌ছের কোন দৃ‌শ্যের বা গা‌ড়ির ‌দি‌কে তাকালে দেখ‌বেন যে সেগু‌লো দ্রুত বে‌গে ধা‌বিত হ‌চ্ছে, এটা দে‌খে মাথা ব‌্যাথা বা ব‌মির সম্ভাবনা বে‌ড়ে যায়।
৫৷ গা‌ড়ি‌তে ঘুমাতে পা‌রেন, য‌দি ঘুমের অভ‌্যাস না থা‌কে তাহলে চোখ বন্ধ ক‌রে কোন বিষ‌য়ে মনোযোগী হ‌তে পা‌রেন যা‌তে আপনি গা‌ড়ি‌তে আছেন এটা ম‌নে না হয়।
৮৷ এক টুক‌রো আদা মু‌খে দি‌য়ে চিবা‌তে পা‌রেন, বমির ভাব চলে যাবে৷
৯৷ ভোজ‌্য খাবার বা ভাজা‌পোড়া খাবার যথা সম্ভব এ‌ড়ি‌য়ে চলুন।
১০৷ টক জাতীয় ফল খে‌তে পা‌রেন, টক ফল ব‌মির ভাব দূর ক‌রে।
১১। পু‌দিনা পাতা অ‌্যা‌সি‌ডি‌টি-‌তে উপকারী, অ‌্যা‌সি‌ডি‌টির জন‌্য খে‌তে পা‌রেন।
১২। এক টুক‌রো দারু‌চি‌নি বা লবঙ্গ মু‌খে দি‌য়ে চিবা‌তে পা‌রেন। এ‌তে ব‌মি ব‌মি ভাব চ‌লে যা‌বে।
১৩। সব সময় গা‌ড়ির সাম‌নের দি‌কের সী‌টে বসার চেষ্টা কর‌বেন।
১৪৷ গা‌ড়ি‌তে উঠার আগে পেট ভ‌র্তি ক‌রে খা‌বেন না এবং বে‌শি পা‌নি পান ক‌রে পেট ভ‌র্তি কর‌বেন না।
সব কথার শেষ কথা-মান‌সিক ভা‌বে শ‌ক্তিশালী হ‌তে হ‌বে। আপন‌ি য‌দি মান‌সিক ভা‌বে ভে‌ঙ্গে প‌ড়েন এবং য‌দি ভা‌বেন আপনার ব‌মি হ‌বেই ত‌াহ‌লে ব‌মি হ‌বেই। ম‌নে সাহস নি‌য়ে গা‌ড়ি‌তে উঠ‌বেন, ব‌মি হ‌বেনা। তারপরও উপ‌‌রোক্ত পরামর্শ গু‌লো মে‌নে চলুন অ‌নেকাং‌শে ক‌মে যা‌বে। অথবা চি‌কিৎস‌কের পরামর্শ অনুযায়ী ঔষধ সেবন কর‌তে পা‌রেন।
আপনার যাত্রা শুভ হোক।

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here