কিভাবে ফেসবুক থেকে আয় করা যায়?

কিভাবে ফেসবুক থেকে টাকা আয় করা যায়

ফেসবুক থেকে আয়

২০২২ সালে ফেসবুক থেকে আয় করার উপায়

ফেসবুকের যাত্রা শুরু হয় ২০০৪ সাল থেকে। ফেসবুক থেকে আয় করার উপায় করার অনেক পদ্ধতি আছে। আমরা এগুলো নিয়ে বিস্তারিত আলোচনা করব। কিছু দিন পূর্বেও মানুষ মনে কর ফেসবুক একটি সোশ্যাল মিডিয়া। যেটি সামাজিক যোগাযোগের একটা মাধ্যম মাত্র। কিন্তু কয়েক বছরের ব্যবধানে ফেসবুকের মধ্যে বিশাল একটা পরিবর্তন নিয়ে এসেছে। যেখানে এখন শুধু সোশ্যাল মিডিয়ায় কথোপকথন নয় বরং সোশ্যাল বিজনেস বা ইন্টারনেশ্যানাল বিজনেস ও বলতে পারেন। এখন সহজেই ফেসবুক থেকে আয় করা যায়।

আর যেটির সুযোগ নিচ্ছে হাজার হাজার দেশ-বিদেশের ফ্রিল্যান্সার এবং ইনকাম করছে মাসে লক্ষ লক্ষ টাকা। তাই আপনিও যদি একজন ফ্রিল্যান্সার হতে চান বা ফেসবুক থেকে ইনকামের কথা ভেবে থাকেন তাহলে এই পোস্টে আপনাকে স্বাগতম।

এই পোস্টে কি আলোচনা করা হবেঃ

আজকে আমরা আলোচনা করব কিভাবে ফেইসবুক থেকে ইনকাম করা যায়, ফেইসবুক থেকে ইনকামের উপায় গুলো কি, কতভাবে ফেইসবুক থেকে ইনকাম করা যায়, ফেইসবুক থেকে আপনি কিভাবে ইনকাম শুরু করতে পারেন ইত্যাদি বিষয়ে। তো চলুন শুরু করি।

বর্তমান সময়ে আপনি চাইলে ঘরে বসে অনেক ভাবে ফেসবুক থেকে ইনকাম করতে পারেন। যেমন:

• ফেসবুক মার্কেটিং থেকে টাকা আয়
• ফেসবুক বিজনেস পেইজ থেকে টাকা ইনকাম
• ফেসবুক এডস এর মাধ্যমে আয়
• অ্যাফিলিয়েট মার্কেটিং এর মাধ্যমে আয়
• ফেসবুকে ভিডিও আপলোড করে টাকা আয়
• ফেসবুক গ্রুপ থেকে টাকা ইনকাম
• ফেসবুক বিজনেস পার্টনারশিপ থেকে টাকা আয়
ইত্যাদি

 

• ফেইসবুক মার্কেটিং করে টাকা আয়ফেসবুক থেকে আয়

ফেসবুক যেহেতু একটা বিগ প্লাটফর্ম তাই এখানে বিশ্বের বড় বড় সব ই-কমার্স কোম্পানি গুলো কাজ করে থাকে। যেমন :আলী বাবা, অ্যামাজন, থিমপরেস্ট, আলী এক্সপ্রেস ইত্যাদি। এছাড়াও আপনি এখানে অনেক নতুন নতুন কোম্পানিকে প্রতিদিন এড হতে দেখবেন। যারা তাদের বিজনেসকে এগিয়ে নিতে ফেসবুকের সহায়তা নিচ্ছে। আর ফেসবুক থেকে সঠিক পন্থায় হেল্প পাওয়ার জন্য তারা বিভিন্ন ফ্রিল্যান্সারদের হায়ার করছেন।

তাই আপনিও যদি ফেসবুক মার্কেটিং সম্পর্কে ভালো জানেন তাহলে আপনিও হতে পারেন এসব কোম্পানির একজন সম্মানিত মার্কেটার। তারা আপনাদের দিয়ে তাদের নানা রকম কাজ করাবে এবং বিনিময়ে আপনাদের  একটা পেমেন্ট দিবে।
যেমন কাজ গুলো হল: ফেসবুক বিজনেস পেইজ তৈরি, প্রোমোট, বুষ্ট, ম্যানেজমেন্ট ইত্যাদি

•বিজনেস পেইজ দিয়ে ফেসবুক থেকে আয়

আপনার যদি ছোট-খাটো একটা কোম্পানি বা ছোট-খাটো একটা বিজনেস থাকে বা আপনি যদি একজন সার্ভিস প্রোভাইডার হন, তাহলে এই ফেসবুক পেইজটি হতে পারে ইনকামের একটা বিশাল ক্ষেত্র। কেননা ফেসবুকে প্রতিনিয়ত লক্ষ-কোটি মানুষ ব্যবহার করছেন তাদের বিভিন্ন প্রয়োজনে। তাই আপনি সেই সুযোগকে কাজে লাগিয়ে যদি একটা ভালো সার্ভিস প্রোভাইড করতে পারেন তাহলে একটা ভালো ইনকাম করা যেতে পারে।

এছাড়াও আপনি চাইলে নিজের জন্য একটা পার্সোনাল পেইজ তৈরি করে সেটাতে ভালো পরিমানে ফলোয়ার অ্যাড করিয়ে সেই পেইজটি বেশ ভালো দামে বিক্রি করতে পারবেন বিভিন্ন কোম্পানির কাছে এবং মাস শেষে বেশ ভালো একটা এমাউন্ট জেনারেট করতে পারেন।

মোবাইলের ছবি বিক্রি করে আয় করুন

• অ্যাডস এর মাধ্যমে ফেসবুক থেকে আয়

শুরুতেই বলা হল ফেসবুক এমন একটা মিডিয়া যেখানে আপনি একেবারে দরিদ্র মানুষের সন্ধান পাবেন আবার ঠিক একইভাবে ওয়ার্ল্ডের বড় বড় কোম্পানি গুলোর সন্ধানও পাবেন। তাই আপনার যদি একটি ভালো ফেসবুক পার্সোনাল প্রোফাইল থাকে এবং সেখানে প্রচুর পরিমানে অ্যাক্টিভ ফ্রেন্ড সার্কেল থাকে তাহলে আপনি এই প্রোফাইল থেকেও টাকা ইনকাম করতে পারবেন।

আর এটি করার জন্য আপনার আশেপাশের বা অনলাইন থেকে ঐ সকল বিজনেস ওনাদের খুঁজে বের করুন। যাদের একটা ছোট-খাটো/বড় বিজনেস রয়েছে। তাহলে আপনি ঐ সব কোম্পানির সাথে যোগাযোগ করে তাদের বিভিন্ন পণ্য বা তাদের কোম্পানির প্রচার বা বিজ্ঞাপন /অ্যাডস চালাতে পারেন আপনার প্রোফাইলে এবং মোটামুটি একটা ভালো ইনকাম জেনারেট করতে পারেন।

• অ্যাফিলিয়েট মার্কেটিং করে টাকা আয়

আপনি চাইলে ফেসবুকের মাধ্যমে ওয়ার্ল্ডের বড় ছোট সব কোম্পানির সাথে অ্যাফিলিয়েট পার্টনারশীপ হিসেবে কাজ করতে পারেন। প্রথমে যারা বা যেসব কোম্পানি অ্যাফিলিয়েট সার্ভিস দিয়ে থাকে তাদের খুঁজে বের করুন। তারপর আপনি চাইলে নিজের প্রোফাইল দিয়ে বা একটা পেইজ দিয়ে অথবা একটা গ্রুপ তৈরি করে সেখানে অ্যাফিলিয়েট লিংক প্রমোট করিয়ে ইনকাম করতে পারেন। যে সকল কোম্পানি অ্যাফিলেট পার্টনারশিপ দিয়ে থাকেন এমন কয়েকটা কোম্পানি হল :
1. Daraz/BD
2. Commission Junction
3. ShareASale
4. Clickbank
5. Theme forest
6. Refersion marketplace
7. ImpactRadius
8. Partnerstack
9. Amazon Affiliate Program
10. Rakuten

এছাড়াও আপনি চাইলে বাংলাদেশের বিভিন্ন কোম্পানিকে খুঁজে পাবেন যারা অ্যাফিলিয়েটিং পার্টনারশিপ নিয়ে থাকে।

• ভিডিও আপলোড করে ফেসবুক থেকে আয়

ইউটিউবের পরেই হচ্ছে ফেসবুকের স্থান, যেখানে তারাও তাদের কনটেন্ট ক্রিয়েটরসদের একটা ভালো এমাউন্ট দিয়ে থাকেন। তাই আপনার যদি কোন বিষয়ে সামান্য জ্ঞান থাকে তাহলে আপনিও ফেসবুকে নিয়মিত ভিডিও আপলোড করে সেটাতে মনিটাইজেন অন করে, সেখান থেকেও একটা ইনকাম করতে পারেন। আর আপনি যদি অলরেডি একজন ইউটিউব কনটেন্ট ক্রিয়েটরস হন তাহলে একই ভিডিও ফেসবুকে ছেড়েও কিন্তু ইনকাম করতে পারেন।

• গ্রুপ বানিয়ে ফেসবুক থেকে আয়

বর্তমানে ফেসবুকে ইনকামের একটা বিশেষ সোর্স হচ্ছে ফেসবুক গ্রুপ। আপনার কাছে যদি একটা বড় ফেসবুক গ্রুপ থাকে তাহলে আপনি সেখান থেকে অনেক ভাবে আয় করতে পারেন। যেমন:
1. অ্যাফিলিয়েটিং
2. এডভার্টাইজিং
3. সার্ভিসিং
৪. প্রোমোটিং ও
5. সেলিং ইত্যাদি

• বিজনেস পার্টনারশিপ করে ফেসবুক থেকে আয়

যত দিন যাচ্ছে মানু্ষ ততই প্রযুক্তি নির্ভর হয়ে উঠছে। আর তাই বর্তমানে মানুষ প্রযুক্তির বিভিন্ন সাইটকে কাজে লাগিয়ে ইনকামের চিন্তা করছে। তাই প্রতিনিয়ত মার্কেটে আসছে নতুন নতুন সব ই-কর্মাস প্রতিষ্ঠান। আপনি চাইলে ঐসব প্রতিষ্ঠানের সাথে পার্টনারশিপ নিয়েও একজন সফল উদ্যোক্তা হতে পারেন। এবং মাস শেষে ইনকাম করতে পারেন লক্ষ লক্ষ টাকা।

মোট কথা

ফেসবুক এমন একটি প্ল্যাটফর্ম যেটাকে ব্যবহার করে আপনি কোন অভিজ্ঞতা ছাড়াই, কোন ইনভেস্ট ছাড়াই মাসে লক্ষ-লক্ষ টাকা করতে পারেন খুব সহজে। তবে এর জন্য চাই একটু গবেষণা ও একটু পরিশ্রম। আর এই রকম আরও নানা কনটেন্ট পেতে আমাদের সাথেই থাকবেন এবং অব্যশই কমেন্টে বলে যাবেন ফেসবুক থেকে আয় করার কোন পদ্ধতিটা আপনার কাছে সবচেয়ে বেশি ভালো লেগেছে। ধন্যবাদ।

2 COMMENTS

    • আপনাকে অসংখ্য ধন্যবাদ। আশা করি সবসময় পাশে থাকবেন।

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here